Xiaomi Mi Mix 3

আপনি কি নতুন কোন ফোন কেনার কথা ভাবছেন? হয়তো বুঝে উঠতে পারছেন না ঠিক কোন ফোনটা আপনার জন্য পারফেক্ট হবে। নানান ব্র্যান্ডের ফোনের মাঝে আমরা কনফিউসড হয়ে যাই। বুঝতে প্রব্লেম হয় কোনটা নিবো। আরে চিন্তা কিসের?

আপনাদের জন্যে তো প্রিয়ফোন.কম আছেই। লেটেস্ট সব ফোনের আপডেট পাবেন শুধু এখানেই। আজ আমি এখানে শাওমি ব্র্যান্ডের লেটেস্ট একটি ফোনের কথা জানাতে এসেছি। ফোনটির অফিসিয়াল নাম Xiaomi Mi Mix 3.

অবশ্যই ৪জি এনাবল এই ফোনটি।এই ফোনটিতে পাচ্ছেন ৬.৯ ইনচেসের বেশ বড় একটি ডিসপ্লে।ওএস ভার্সন ওরিও, মোট ৩ টি ক্যামেরা সহ থাকছে অনেক অনেক ফিচার্স। আসলে মিডরেঞ্জ এর ফোনটিতে কি নেই এটা খুঁজে বের করা খুবই কঠিন। সে যাই হোক, কেন কিনতে পারেন? বা কেন এটি আপনার পছন্দের তালিকায় থাকার দাবিদার? সেই বিষয়গুলোর জন্য কষ্ট করে যে পড়তে হবে আমার লিখাগুলো। চলুন চোখ বুলিয়ে নেই এই ফোনটির বিশেষ দিকগুলোর দিকে।

 বডি ওয়েইট এবং সিম

স্মার্টফোন দেখতে স্মার্ট না হলে বেমানান লাগে। কি ঠিক বললাম তো? একদম, স্মার্ট ইউজারদের কথা মাথায় রেখেই বাজারে আনা হয়েছে এই ফোনটি। বিল্ড কোয়ালিটি খুবই মুগ্ধ করেছে আমাকে। স্লিম এই ফোনটিতে থাকছে ফ্রন্ট গ্লাস। প্রিমিয়াম লুক আর ডিউরাবিলিটির জন্য ব্যাক পার্টে অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহার হয়েছে। ফোনটির ওয়েইট রাখা হয়েছে ২২১ গ্রাম। সিমের ক্ষেত্রে পাচ্ছেন অনেক..অনেক সুবিধা। কারণ দুই দুইটি সিম ব্যবহার করতে পারবেন একসাথে এইফোনটিতে।

ডিসপ্লে এবং মেমরি

বিগ ডিসপ্লে যারা চান তাদের জন্য লোভনীয় এইফোনটি। এতে পাচ্ছেন ৬.৯ ইনচেসের ডিসপ্লে। ডিসপ্লে ডেনসিটিটিও অবাক করার মতো ৩৫০ পিপিআই। মাল্টিটাচিং যাদের প্যাশন তাদের জন্য এই ফোনটি পারফেক্ট। মাল্টিটাচ এই ডিসপ্লেতে রেসুলেশন থাকছে ১০৮০*২১৬০ পিক্সসেলস। ওহ হ্যাঁ, ডিসপ্লে হিসেবে পাচ্ছেন আইপিএস এলসিডি ক্যাপটিভ টাচস্ক্রিন। ডিসপ্লে কোয়ালিটিতে এটা এই সময়ের বেস্ট ডিভাইস।আর হ্যাঁ, মেমোরিকার্ড স্লটও পাচ্ছেন এক্সট্রা করে। এই ফোনটিতে ইন্টারনাল স্টোরেজ পাচ্ছে ৬৪/১২৮। আর এক্সট্রানাল মেমরি হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন ২৫৬ জিবি পর্যন্ত।

 অপারেটিং সিস্টেম,RAM এবং অন্যান্য ফিচার্স

ফোনের পারফরমেন্স নির্ভর করে এর অপারেটিং সিস্টেমের উপর। আর এই ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে এন্ড্রোয়েড ৮.১ ওরিও। যা লেটেস্ট ভার্সন এই পর্যন্ত। সিপিইউ হিসেবে পাচ্ছেন অক্টাকোর ১.৮ গিগাহার্জের কেরও ২৬০। জিপিইউ  একটি অন্যতম বিষয়। সেখানেও হতাশ হবেন না। পাচ্ছেন এডরেন ৫০৯ জিপিইউ এই ফোনটিতে। RAM নিয়ে আর কি বলবো? শাওমি বরাবরের মতো এবারেও RAM নিয়ে নিরাশ করে নি কাওকে। বাজারে পাবেন ৪জিবি ও ৬জিবি ২টি RAM ভেরিএন্টিরেই ফোন। শুধু জাস্ট নিজের চাহিদা বুঝে সিলেক্ট করার পালা এবার।

অন্যান্য ফিচার্স বলতে অনেক কিছুই পাচ্ছেন ফোনটিতে।পাচ্ছেন ফ্রিঙ্গারপ্রিন্ট যা রিয়ার মাউন্টেড থাকবে। মেসেজিং এর ক্ষেত্রে পাবেন এসএমএস,এমএমএস এবং ইমেইলের সুবিধা। ব্রাউজার তো অবশ্যই HTML5 থাকবে নির্সন্দেহে।

 ক্যামেরা এবং ব্যাটারী লাইফ

আপনি কি একটি পারফেক্ট ক্যামেরা ফোন চাচ্ছেন? তবে শাওমি আপনাকে এইদিক দিয়ে সন্তুষ্ট করতে সক্ষম হবে।  কারণ এই ফোনটিতে থাকছে তিন তিনটি ক্যামেরা।প্রাইমারি ক্যামেরাটি ১২+৫ এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরাটি থাকে ৮  মেগাপিক্সসেলের। যা চমৎকার ছবি উপহার দেবে আপনাকে।ক্যামেরা ফিচার্সের মধ্যে থাকছে এলইডি ফ্ল্যাশ,আইসিডিয়ার এবং পানোরমার সুবিধা।

ব্যাটারীর দিক দিয়ে এই সময়কার বেস্ট ফোন এটি।  ফোনটিতে থাকছে 5500mah এর একটি ব্যাটারী।  আর হ্যাঁ বলে রাখা ভালো। ব্যাটারিটি সম্পূর্ণই নন-রিমুভেবল।

চমৎকার এই ফোনটি করে নিন নিজের শুধুমাত্র ২৪৯৯০ টাকাতে। কি বেশি মনে হচ্ছে? আমার কাছে কিন্তু একদম ঠিকঠাকই লেগেছে। এতগুলো ফিচার্স একটি ফোন পেতে এতটুকুতো খরচ তো করাই যায়।একটি ভালো ফোনের সব ফিচার্স এতে পাবেন। তাই আপনি কিন্তু নিতেই পারেন ফোনটি। আশা করছি ঠকবেন না। তো আজ এইপর্যন্তই। আবার নতুন কোন চমক নিয়ে হাজির হবো আগামী লিখাতে। ততক্ষন পর্যন্ত ভালো থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here