Samsung

স্মার্ট জেনারেশন সবসময় স্মার্টফোন নিয়ে মেতে থাকতে ভালোবাসে। যারা স্মার্টফোন ইউজার তারা সবসময় লেটেস্ট ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন তাদের হাতের মুঠোয় পেতে চায়। চায় স্মার্টফোনের রঙিন ডিসপ্লেতে নিজ স্পর্শের মাধ্যমে প্রযুক্তির বিশ্ব পরিভ্রমণ করতে। Xiaomi এবং Samsung এখন প্রায় সবারই চেনা দুইটি স্মার্টফোন ব্র্যান্ড।

বাংলাদেশের বাজারে এই দুইটি ব্র্যান্ড প্রাইজ ভিন্নতা না রেখে দুইটি স্মার্টফোন এনেছে। স্মার্টফোন দুইটির মূল্যে এবং কনফিগারেশনে তেমন বড় ধরণের কোনো পার্থক্য থাকছে না। যার জন্য একজন নতুন স্মার্টফোন ক্রেতার কাছে দুইটির মধ্যে যেকোনো একটি সিলেক্ট করার ক্ষেত্রে কনফিউশন কাজ করাটাই স্বাভাবিক।

তবে বন্ধুরা, সকল কনফিউশন দূর করতে এবং আপনাকে সঠিক তথ্যটি জানাতে Priyophone.com আছে আপনার পাশেই। চলুন তবে একটা কাজ করি। দুইটি স্মার্টফোনকেই আমরা পাশাপাশি তুলনা করবো। দেখবো কোনটা কোন দিক দিয়ে এগিয়ে। চলুন তবে দেখে নেই কোনটি এগিয়ে থাকবে ফিচার্স এর দিক দিয়ে ।

Xiaomi Mi A2 এবং Samsung Galaxy J6+ ব্যাটারী এবং পারফরমেন্স

ব্যাটারী এর দিক দিয়ে দেখতে গেলে Samsung কেই এগিয়ে রাখতে হবে। যদিও দুইটি ফোনের ব্যাটারী বিবেচনায় তেমন বড় পার্থক্য নেই। Xaiomi mi a2 তে যেখানে 3000mAH এর ব্যাটারী দেয়া হয়েছে। সেখানে Samsung galaxy j6+ এ দেয়া হয়েছে 3300mAh এর ব্যাটারী। পার্থক্যটা আহামরি না হলেও ব্যাটারী পারফরম্যান্সের দিক দিয়ে এক্ষেত্রে Samsung কেই এগিয়ে রাখতে হচ্ছে।

ক্যামেরা

ক্যামেরা সেকশনে বর্তমানে Xiaomi আধিপত্য বিস্তার করে রেখেছে। এই ফোনটির ক্ষেত্রেও এই বিষয়টির কোনো বাতিকক্রম ঘটে নি।Xiaomi mi a2 তে পাচ্ছেন রেয়ার এ Dual 12+20 MP এর দুই দুইটি ক্যামেরা। আর ফ্রন্টে থাকছে 20 MP এর দারুন একটি সেলফি ক্যামেরা।অপরদিকে, Samsung galaxy j6+ এ থাকছে রেয়ারে 13+5 MP এর দুইটি ক্যামেরা এবং ফ্রন্টে থাকছে 13 MP এর সেলফি ক্যামেরা।

সেইদিক দিয়ে দেখতে গেলে Xiaomi mi a2 কেই ক্যামেরার দিক দিয়ে এগিয়ে রাখা যায়।

ডিসপ্লে এবং প্লাটফর্ম

ডিসপ্লে একটি স্মার্টফোনের জন্য খুবই জরুরি একটি জিনিস। ডিস্প্লেয়ের উপরেই অনেক সময় স্মার্টফোনের লুক এবং পিকচার এবং ভিডিও কোয়ালিটি নির্ভর করে। ডিস্প্লেয়ের ক্ষেত্রে দুইটি ফোনেই IPS LCD Capacitive touchscreen ব্যবহার করা হয়েছে। এবং ডিস্প্লেয়ের সাইজেও প্রায় একই বলা চলে।

কিন্তু Xiaomi mi a2 তে ডিসপ্লে প্রটেকশনের ব্যবহার করা হয়েছে Corning Gorilla Glass 5।

প্লাটফর্মের কথা বলতে গেলে Xiaomi mi a2 তে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Android Oreo 8.1 এবং Samsung galaxy j6+ এ ব্যবহার করা হয়েছে Android Oreo 8.0 ভার্সনটি। এইদিক থেকেও xiaomi কেই এগিয়ে রাখা যায়।

Ram ,Rom এবং এক্সপেন্ডেবল মেমোরিকার্ড স্লট

xiaomi mi a2 স্মার্টফোনটিতে এর ব্যবহারকারীরা পাবেন 4GB Ram এবং 64GB Rom বা ইন্টারনাল মেমোরির সুবিধা। অপরদিকে Samsung galaxy  j6+ বাজারে পাওয়া যাচ্ছে দুইটি ভ্যারিয়েন্টে একটি 4GB Ram এবং 64GB Rom আরেকটি 3GB Ram এবং 32GB Rom সম্বলিত।

এক্ষেত্রে দুইটির মধ্যে কোনো ডিভাইজ এই এক্সপান্ডবল মেমোরীকার্ডের সুবিধা পাচ্ছেন না।

সিমকার্ড স্লট এবং অন্যান্য ফিচার্স

যারা একাধিক সিম ব্যবহার করতে অভ্যস্ত তারা এই দুইটি ডিভাইজ এই পাবেন দুইটি সিম ব্যবহারের সুবিধা। অন্যান্য ফিচার্সের মধ্যে দুইটি স্মার্টফোনেই থাকছে ফ্রিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। পাশাপাশি ইমেইলের সুবিধা তো থাকছেই দুইটি স্মার্টফোনেই। মোট কথা , স্মার্টফোনের যেসব ফিচার্স ছাড়া এখনকার স্মার্টফোন ভাবাই যাই না সেগুলোর সবগুলোই এই দুইটি স্মার্টফোনে রয়েছে।

তাহলে বন্ধুরা সব দিক দিয়ে আমরা এই দুইটি স্মার্টফোনই পর্যালোচনা করলাম। দুইটি স্মার্টফোনের বাংলাদেশের বাজারে প্রাইজ ২৩৯৯০ টাকা। আর ফিচার্স এর দিক দিয়েও প্রায় সমানে সমান এই দুইটি ডিভাইজই। তারপর কিছু কিছু দিক দিয়ে আমি Xiaomi mi a2 কেই এগিয়ে রাখবো Samsung galaxy j6+ এর থেকে।

তারপরও যারা নতুন স্মার্টফোন নেয়ার কথা ভাবছেন নিতে পারেন এই দুইটির মধ্যে যেকোনো একটি। তাহলে আজ এই পর্যন্তই। সবাই সুস্থ থাকুন,ভালো থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here