Vivo

আপনি কি চাচ্ছেন নতুন ফিচার্স সম্মৃদ্ধ একটি স্মার্টফোন? বা খোঁজ করছেন এমন একটি স্মার্টফোনের যেটি অন্যান্য স্মার্টফোনের চাইতে অনেকটা ইউনিক এবং স্মার্ট হবে লুক এবং ফিচার্সের দিক দিয়ে?  তবে Vivo V11Pro হতে পারে আপনার কাঙ্খিত ডিভাইজটি। কারণ ডিভাইজটিতে পাচ্ছেন একটি চমৎকার ফুলভিউ ডিসপ্লে যার উপরে থাকছে একটি ওয়াটার ডট ভেরিয়েশন। হ্যাঁ ভিভো এই প্রথম কোন স্মার্টফোন ওয়াটার ডট ডিসপ্লে দিয়ে বাজারে আনলো।

ক্যামেরার দিক দিয়ে সেরা এইফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে মোট ৩টি ক্যামেরা।

প্রসেসর,RAM ,ROM এর দিয়ে সেরা এই ডিভাইজটি মুগ্ধ করবেই আপনাকে। তবে চলুন একনজরে দেখে আসি কি কি বিশেষ ফিচার্স থাকছে VIvo এর এই নতুন ডিভাইজটিতে।

Vivo V11Pro ফোনটির নেটওয়ার্ক এবং স্পিড

স্মার্টফোনগুলোতে মূলতঃ ২জি,৩জি এবং ৪জি নেটওয়ার্ক এনবিলিটি থেকে থাকে। এইদিক দিয়ে Vivo এর  এইফোনটিও আলাদা কিছু নয়। ব্যাবহারকারীরা ফোনটিতে পাবেন ২জি,৩জি, এবং ৪জি এই তিনধরণের নেটওয়ার্কের সুবিধাই। স্পিড পারফরম্যান্সের দিক দিয়েও অনেকটাই এগিয়ে রাখবো ফোনটিকে। কারণ ভিভো বরাবরই তাদের ডিভাইজগুলোর স্পিড পারফরমেন্স ধারাবাহিকতা মেইনটেইন করে থাকে। স্পীডের জন্য এতে রাখা হয়েছে HSPA ,LTA-A । যা স্পীডের জন্য খুব ভালো একটি বিষয়।

বডি এবং ডিসপ্লে

যদি ভালো বিল্ড কোয়ালিটির একটি ফোনের খোঁজ করে থাকেন তবে পছন্দ হবে আপনার ভিভোর এই ডিভাইজটি। প্লাষ্টিক ফ্রেম এবং গ্লাস বডির ভেরিয়েশন এই ফোনটিকে দিয়েছে একটি প্রিমিয়াম লুক। যারা প্রিমিয়াম লুকের একটি ভালো ব্র্যান্ডের ফোনের খোঁজ করছেন তাদের জন্য এটা বেস্ট একটি ডিভাইজ হতেই পারে। ফোনটির বডি ওয়েইট থাকছে 156kg যা খুব একটা বেশি না।

যারা বড় মাপের ডিস্প্লের স্মার্টফোন খোঁজ করছেন তাদের এর 6.41inches এর ডিস্প্লে অনেকটাই আকৃষ্ট করবে। সব চেয়ে আকর্ষণীয় বিষয় যেটা এই ফোনটির সেটি হলো এর ওয়াটার ডট ডিস্প্লে। যা প্রিমিয়াম লুকের দিক দিয়ে ফোনটিকে দিয়েছে নান্দনিক একটি মাত্ৰা।

অপারেটিং সিস্টেম,সিপিইউ,জিপিইউ এবং চিপসেট

একটি ফোনের ওভারঅল পারফরমেন্স নির্ভর করে এর অপারেটিং সিস্টেমের উপর। সেইদিক দিয়ে ভিভোর এই ডিভাইজটিতে এন্ড্রোয়েড ৮.১ ওরিও ভার্সন ব্যবহার করা হয়েছে। সিপিইউ হিসেবে এখনকার সময়ের বেস্ট অক্টাকোর ব্যবহার করা হয়েছে। জিপিইউএর কথা বলতে গেলে বেস্ট একটি জিপিইউ সিস্টেম Adrino512 সিস্টেম পাচ্ছেন এইফোনটিতে।চিপসেট হিসেবে এতে ব্যাবহার করা হয়েছে Qualcomm SDM660 Snapdragon 660  সিস্টেমটি।

RAM-ROM ,মেমরি এবং ক্যামেরা

ফোনের স্পীডি পারফরমেন্স এবং এর কার্যক্ষমতার নির্ধারক হলো এর RAM। আপনি যদি বেস্ট পারফরম্যান্সের একটি ফোন চান তবে এটি আপনার জন্য পারফেক্ট একটি ফোন হবে। কারণ এতে RAM এবং ROM হিসেবে দেয়া রয়েছে ৬জিবি এবং ১২৮জিবি। যাদের আরো বেশি স্টোরেজের দরকার হয় তারা এতে ব্যবহার করতে পারবেন ২৫৬জিবি পর্যন্ত এক্সটার্নাল মেমরিকার্ড।

ভিভো ক্যামেরাফোন হিসেবে নিজেদের দাবি করে থাকে। ভিভো তার এই ফোনটিতে ক্যামেরা পারফরম্যান্সের দিক দিয়ে তাদের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে পেরেছে। কারণ এইফোনটিতে ভিভো দিয়েছে তিন তিনটি ক্যামেরা। ব্যাক ক্যামেরা হিসেবে দেয়া রয়েছে ১২+৫ এমপির দুইটি এবং ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে দেয়া রয়েছে ২৫ এমপির একটি সেলফি ক্যামেরা।

ব্যাটারী এবং অন্যান্য ফিচার্স

যারা প্রিমিয়াম লুকের সাথে একটি ভালো ব্যাটারী পারফরম্যান্সের ফোন চাচ্ছেন তাদের জন্য বেস্ট অপসন হতে পারে ভিভোর এইফোনটি। প্রিমিয়াম লুকের কথা মাথায় রেখে এতে 3400mAH এর একটি নন-রিমুভেবল ব্যাটারী দেয়া আছে ফোনটিতে। যা আপনাকে অনায়াসে ৭ থেকে ৮ ঘন্টা স্ক্রিন অন টাইম দিতে সক্ষম। অন্যান্য ফিচার্সেস মধ্যে এই ফোনটিতে ফ্রিঙ্গার লুক সিস্টেমটি আরো বেশি ইউনিক করা হয়েছে। আন্ডার ডিস্প্লে ফ্রিঙ্গার লক এর বিষয়টি ফোনটিতে একটি বিশেষ লুকের সাথে দিয়েছে পারফেক্ট ফুল ভিউ ডিসপ্লের নিশ্চয়তা।

সবশেষে বলা যায় ,প্রিমিয়াম রেঞ্জের ফোনগুলোর মধ্যে Vivo এর এইফোনটিকে প্রথমসারির একটি ডিভাইজ বলা যায়। কারণ ওয়াটার ডট ডিস্প্লের ভার্সনের এইফোনটি যেটা ফুলভিউ ডিস্প্লেয়ের সাথে আপনাকে দিচ্ছে আন্ডার ডিস্প্লে ফ্রিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারের মতো দারুন একটি ফিচার্স। তো আর দেরি না করে যারা ভালো একটি প্রিমিয়াম লুকের স্মার্টফোনের খোঁজ করছেন লুফে নিন এইফোনটিকে। তাহলে বন্ধুরা এই ছিল Vivo V11Pro নিয়ে আমার আজকের আলোচনা। নেক্সট কোন একসময় হাজির হবো নতুন কোন বিষয় নিয়ে আপনাদের মাঝে। সবাই ভালো থাকুন,সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here