Bluetooth

আমরা যারা স্টাইল সচেতন তারা সবসময়েই স্টাইলিস্ট এবং ট্রেন্ডি থাকতে পছন্দ করি। আমরা সবাই অবশ্য কম বাজেটেই স্টাইলের দিক দিয়ে আপডেটেড এবং ট্রেন্ডের থাকার উপকরণ গুলো খুঁজতে থাকি।অনেক সময় চেষ্টা করি স্মার্টফোনটি দিয়ে নিজের স্মার্ট পার্সোনালিটিটি ফুটিয়ে উঠানোর। অথবা  চেষ্টা করি আপডেটেড স্মার্টফোন একসেসোরিজ দিয়ে স্মার্টফোনটাকে মানানসই একটা লুক দিয়ে নিজের পার্সোনালিটিটা আপডেট করানোর।

সে যাই হোক, স্বাভাবিক এয়ারফোন সম্পর্কে তো আমরা সবাই পরিচিত। কিন্তু বাজারে যে বিভিন্ন ব্র্যান্ড এবং কোয়ালিটির Bluetooth বা ওয়ারলেস এয়ারফোন পাওয়া যাচ্ছে এই খবরটা রেখেছেন কি? জি হ্যাঁ, আমরা হয়তো নাম জানি কিন্তু ঠিক জানি না এয়ারফোনগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু। তাই আমি আজ আপনাদের মাঝে নিয়ে এসেছি এমন কিছু ওয়ারলেস এয়ারফোনের খুঁটিনাটি তথ্য যা আপনার জানার আগ্রহটা পূরণ করবে আশা করছি।

আর আমার এই লিখার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কি কি ব্র্যান্ডেড ওয়ারলেস এয়ারফোন পাবেন বাংলাদেশের মোবাইল একসেসোরিজ স্টলগুলোতে। তবে আর দেরি না করে দেখে নিই কি কি এয়ারফোন বাংলাদেশের বাজারে সুলভে পাওয়া যাচ্ছে।

Beat Solo HD স্টেরিও হেডফোন (কপি)

আপনি কি স্টাইলিস্ট এবং সহজ বহনযোগ্য কোনো ষ্টুডিও মডেল টাইপের হেডফোন খুঁজছেন। তবে এই হেডফোনটি আপনার ভালো লাগতে বাধ্য। কালারফুল এই হেডফোন যেইটা দেবে আপনাকে হাই ডেফিনেশন এবং স্টেরিও উইথ রিয়েল বিটস এর মজা। এই হেডফোন সব ডিভাইজের সাথে ব্যবহার উপযোগী। এমনকি

আইফোন,নোকিয়া,আইপ্যাড,এরিকসন,ম্পি৩ বা ম্পি৪ যেকোনো ডিভাইজের সাথে বেশ ভালো পারফরমেন্স দিতে সক্ষম।

Mini TF -503 ব্লুটুথ স্টেরিও হেডসেট/হেডফোন

দারুন ফিচার্স সম্মৃদ্ধ এই হেডফোনটির ছোট-খাটো স্টাইলিস্ট লুক যা আপনাকে নতুন এক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন করবেই।রোলিং করে পকেট রাখা যায় এমন একটি হেডফোন যা থাকতেই পারে আপনার পছন্দের তালিকায়। রিচারজিং সিস্টেমের এই হেডফোনটি একবার চার্জে অনায়াসে ২-৩ ঘন্টা ব্যাক আপ দিতে সক্ষম। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এই হেডফোনটিতে আপনি পাচ্ছেন এক্সট্রা ভাবে ভলিউম কন্ট্রোলার বোতাম ।

আরো পাচ্ছেন কল রিসিভ এবং রিজেক্ট করার বোতামগুলোও। যা আপনার কাজকে করবে সহজ এবং মজাদায়ক।

LG ওয়ারলেস স্টেরিও হেডসেট/হেডফোন

আমরা বেসিক্যালি সবাই ব্র্যান্ডের জিনিসগুলো ব্যাবহারে সাচ্ছন্দ্য বোধ করি। আপনি যদি ওয়্যারলেস হেডফোন ব্র্যান্ডের খোঁজ করেন তবে LG এর এই হেডফোনটি ট্রাই করতে পারেন।স্ট্যান্ডবাই টাইম ৫৪০ ঘন্টা এবং প্লে ও মিউজিক টাইম ১৫ এবং ১০ ঘন্টা নিয়ে এই হেডফোনটির পারফরমেন্স অসাধারণ বললে ভুল হবে না।এই হেডফোনটিতে পাচ্ছেন নয়েস রিডাকশন সিস্টেম যা আপনার হেডফোন ব্যাবহারের অনুভূতিকে করবে স্মুথ এবং আরামদায়ক।

Mini Bluetooth হেডসেট/হেডফোন

ছোট এবং সিম্পল ডিভাইজের প্রতি আমাদের সবারই আকর্ষণ কাজ করে। তাই বাজারের চাহিদার কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ওয়্যারলেস ব্লুটুথ হেডফোন পাওয়া যাচ্ছে। রিচার্জএবল এই হেডফোনগুলো বেশ ছোট এবং সহজে বহনযোগ্য। কোনো কোনোটি আবার এতটাই ছোট যে কানে লাগিয়ে রাখলে অন্য কেও বুঝতেও পারবে না যদি বেশি খেয়াল করে না দেখে। সে যাই হোক বাজারে এমন হেডফোন গুলো বেশ রিজেনাবাল দামেই পাওয়া যাচ্ছে।

AWEI A840bl wearless ব্লুটুথ হেডফোন

যারা একটু মোটামুটি মানের স্ট্যান্ডবাই টাইম দিতে পারবে এমন একটি ব্লুটুথ হেডফোন চাচ্ছেন তাদের কথা মাথায় রেখেই এই হেডফোনটি বানানো হয়েছে।রিচার্জেবল এই হেডফোনটি ব্লুটুথ ভার্সন দিয়ে হয়েছে ৪.০ ভার্সনের।এবং একবার চার্জে টকটাইম এবং মিউজিক প্লে টাইম বলা হয়েছে যথাক্রমে ৪.৫ ঘন্টা এবং ৪ ঘন্টা। ২.৪জি ফ্রেকুয়েন্সি সমৃদ্ধ এই হেডফোনটি এর ফিচার্সের উপর ভিত্তি করে থাকতেই পারে আপনার পছন্দের তালিকায়।

তো বন্ধুরা আমরা জানলাম বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যায় এমন বেস্ট কোয়ালিটির কিছু ব্লুটুথ হেডফোন সম্পর্কে। আশা করছি আপনারা বেশ ভালো ধারণা পেয়েছেন যে আসলে কি কি ধরণের ব্লুটুথ বা ওয়্যারলেস হেডফোন পাবেন বাজারে। তাহলে আজ আর বেশি কিছু না লিখি। অন্য কোনো সময় আবারো ফিরবো নতুন কোনো এক্সাইটিং বিষয় নিয়ে ডিসকাশন করতে। সবার সুস্বাস্থ্য কামনা করে এখনকার মতো বিদায় নিচ্ছি।আল্লাহ হাফেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here