Speaker

গান শুনতে আমরা খুব কম মানুষই অপছন্দ করি? কাজের ফাঁকে একটু অবসরে বা বাড়িতে একাকী গান শুনতে আমরা সবাই পছন্দ করি। কেও কেও হেডফোন লাগিয়ে গান শুনি। আবার কেও কেও মিউজিক্যাল ডিভাইজটিতে স্পীকার কানেক্ট করে লাউড ভলিউমে গান শুনতে বেশি সাচ্ছন্দ্যবোধ করি। যারা তাদের স্মার্টফোনে স্পিকার কানেক্ট করে গান শুনে থাকেন তারা তো জানেনই যে কি কি ধরণের স্পিকার বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। মোবাইলফোন একসেসোরিজ হিসেবে অন্যান্য speakerগুলোর সাথে সাথে ব্লুটুথ speaker গুলোই বেশ ভালো জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

আপনি কি ব্লুটুথ স্পিকার কিনার কথা ভাবছেন কিন্তু বুঝে উঠতে পারছেন না কোন ধরণের স্পিকারটি আপনার জন্য বেস্ট হবে? তাহলে আপনার জন্যেই আমার এই লিখাটি। আমার এই লিখাটি পড়লে জানতে পারবেন বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে এমন নানান ফিচার্স সম্মৃদ্ধ ব্লুটুথ স্পিকারগুলোর ভিতরের টুকিটাকি নানান তথ্যগুলো।

F&D 5:1 F3000X ব্লুটুথ Speaker

আপনি কি ভালো একটি ফিচার্স সম্মৃদ্ধ ব্লুটুথ স্পিকার খুঁজছেন? তবে এই ডিভাইজটি হতে পারে আপনার পছন্দের একটি। ফুল রিমোট কন্ট্রোল ফিচার্সযুক্ত এই ব্লুটুথ স্পিকারটিব্লুটুথ ৪.১ ভার্সনের।যার ফ্রন্ট ড্রাইভার ৩” ফুল রেঞ্জ এবং সেন্টার ড্রাইভার ৩” ফুল রেঞ্জ। আর এটির সাবউফার ড্রাইভারটি ৫.২৫”। ফ্রিকোয়েন্সির দিক দিয়ে এটির রেসপন্স 120-20KHz। সব দিক দিয়ে দেখতে গেলে ডুয়াল ফরমেট ডিকোডিংযুক্ত এই ব্লুটুথ speaker টি একদম পারফেক্ট বলে আমার মনে হয়েছে।

A9 মিনি পোর্টেবল ব্লুটুথ স্পিকার

যারা স্মার্টফোন বা ল্যাপটপে ব্যবহার করার জন্য স্মার্ট এবং মিনি ব্লুটুথ স্পিকার খুঁজছেন তাদের জন্য পোর্টেবল ব্লুটুথ স্পিকারটি খুব সুবিধাজনক। ইচ্ছা মতো ব্যাগে করে যেখানে সেখানে নিয়ে যাওয়ার জন্য খুবই ভালো একটি ডিভাইজ হতে পারে এটি। ২.১ চ্যানেলযুক্ত এই ব্লুটুথ স্পিকারে ব্যবহার করা যাবে এসডি কার্ড,টিএফ কার্ড এবং এক্সটার্নাল এম্পি৩। ছোট এবং বহনযোগ্য সাউন্ড সিস্টেম হিসেবে এটি খুব সাশ্রয়ী এবং মোটামুটি টেকসই বলা চলে।

উডেন পোর্টেবল ব্লুটুথ স্পিকার

ক্লাসিক ডিজাইনের এই ব্লুটুথ স্পিকারটি আপনার পছন্দ হতে বাধ্য। আপনি যদি স্টাইলিস্ট এবং ট্রেন্ডি কোনো সাউন্ড সিস্টেমের খোঁজ করেন তবে ইউনিক ডিজাইনের এইটি নিতে পারেন। ফিচার হিসেবে এই ডিভাইজটিতে থাকছে MP3 এবং FM Radio। ব্লুটুথ ২.১ এর সাথে EDR আপ টু ১০ বিষয়টি করেছে এটিকে আরো আকর্ষণীয়। জেনে খুশি হবেন এতে থাকছে TF কার্ড ,USB এবং AUX ব্যাবহারের সুবিধা।

বিল্ড-ইন-রিচার্জেবল ব্যাটারী সিস্টেমটি ডিভাইজটিকে করেছে আরো সহজ।

Bose ব্লুটুথ মিনি স্পিকার

যারা ট্রাভেলিং করতে ভালোবাসেন তাদের জন্য পারফেক্ট একটি ডিভাইজ এটি। কারণ এটি হাতের মুঠোয় করে রাখার মতো একটি ডিভাইজ।এটা অনেক ছোট এবং সহজ বহনযোগ্য। Music on the go তে আপনি উপভোগ করতে পারবেন এক্সট্রাঅর্ডিনারি সাউন্ড কোয়ালিটি। এটি শুধু আপনার স্মার্টফোনেই নয় ব্যবহার করতে পারবেন ট্যাবলেট ,ল্যাপটপ বা অন্য যেকোনো ব্লুটুথ কম্পিটেবল ডিভাইজের সাথে কানেক্ট করে।

S09 পোর্টেবল ওয়ারলেস ব্লুটুথ মিনি স্পিকার

দারুন ওয়ার্কিং টাইম দিতে সক্ষম একটি ব্লুটুথ স্পিকার হলো এটি । মাত্র ২ ঘন্টা চার্জেই ৫ ঘন্টা একটানা ব্যাক আপ দিতে সক্ষম এই ব্লুটুথ স্পিকারটি। ট্রেন্ডি এবং রাউন্ড শেইপের এই ব্লুটুথ স্পিকারটির রেঞ্জ ধরা হয়েছে আপ টু ১০ মিটার। যেকোনো ব্লুটুথ ডিভাইজের সাথে কম্প্যাক্টিবল হতে সক্ষম এই ব্লুটুথ ডিভাইজটি থাকতেই পারে আপনার পছন্দের তালিকায়। এতে ইনপুট হিসেবে Micro SD,USB Flashdisk ,AUX ব্যবহার করা যাবে খুব সহজেই।

মুড হিসেবে একটিভ রাখা যাবে ব্লুটুথ,MP3 প্লেয়ার এবং AUX সিস্টেমটিকেও।

তো বন্ধুরা এইতো ছিল বাংলাদেশের বাজারে সুলভ এমন কিছু ব্লুটুথ speaker সম্পর্কিত আলোচনা। ব্লুটুথ ডিভাইজ কম বেশি আমাদের সবারই দরকার পরে। কিন্তু একটি ভালো এবং পারফেক্ট ব্লুটুথ ডিভাইজটি যেন খুঁজে পেতে আপনার সুবিধা না হয় তার জন্যে আমার এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। তবে আমরা জানলাম কয়েকটি ব্লুটুথ স্পিকার সম্পর্কে। এবং তাদের ফিচার্স সম্পর্কেও জানলাম না জানা বিষয়গুলো। তাহলে সবার সুস্বাস্থ্য কামনা করে এখানেই শেষ করছি। আল্লাহ হাফেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here