Damage

বর্ষাকালে যে কোনো কারণে আপনার ফোনটি ভিজে যেতেই পারে। আপনার শখের মোবাইলফোনটি কি কোন দুঃঘটনাবসত পানিতে পড়ে গেয়েছিল?বা প্রচন্ড গরমে অস্থির হয়ে প্যান্টের পকেটে রেখেই গোসল করতে শুরু করে দিয়েছিলেন? বা পকেটে রেখেই নদীতে নেমেছিলেন সাঁতার কাটতে?সে যেভাবেই হোক হয়তো ভিজিয়ে Damage ফেলেছেন আপনার প্রিয় মোবাইলটি ভুলবশত ভাবে।

মোবাইল ভিজে গেলে অনেকেই মোবাইলফোনটি চেঞ্জ করার কথা ভেবে থাকেন। কিন্তু এমন কিছু কার্যকরী স্টেপস আছে যেগুলো ফলো করলে হয়তো বেঁচে যেতে পারে আপনার ভিজে যাওয়া শখের মোবাইলফোনটি।

হ্যাঁ বন্ধুরা..আমি এখন আপনাদের কিছু টিপস দেব যেগুলো অনেকটাই কার্যকরী এবং ফলসপ্রসূ হবে পানিতে পড়া মোবাইলগুলো সচল করার ক্ষেত্রে। চলুন তবে দেরি না করে দেখে নেই টিপসগুলো কি কি।

Damage হওয়া থেকে রক্ষায় ব্যাটারী সংযোগ বিচ্ছিন্ন করুন

মোবাইলফোন পানিতে পড়ে গেলে ঘাবড়িয়ে যাবেন না। মাথা ঠান্ডা করুন ,শান্ত হউন। আসলে শখের মোবাইলটি পানিতে পড়ে গেলে কারো মাথা ঠিক থাকার কথা না। তবুও মাথা ঠান্ডা করে ফোনটি Damage হবার বাঁচাতে প্রথম স্টেপটি পালন করুন। প্রথমে আপনার মোবাইলফোনটির ব্যাটারী সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করুন। মানে ব্যাটারীটি মোবাইল থেকে আলাদা করে ফেলুন। মোবাইলের প্লাষ্টিক কাভারটি বেশ ভালোই শক্ত হয়ে থাকে।

তবুও পানিতে পড়ে থাকা অবস্থায় যদি মোবাইলফোনটি ২০ সেকেন্ডের বেশি থাকে তবে ব্যাটারীটি পানির সংস্পর্শে চলে যেতে পারে। যার দরুন শর্টসার্কিট হতে পারে। তাই ব্যাটারীটি দ্রুত আলাদা করে ফেলুন।

সিমকার্ড খুলে ফেলুন

মোবাইলের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ জিনিসটি হলো সিমকার্ড। তাই মোবাইলফোন পানিতে পড়ে গেলে যত দ্রুত পারেন সিমকার্ডটি আলাদা করে ফেলবেন।যদিও সিমকার্ড খুব সহজে নষ্ট হয় না। তবুও সাবধান থাকাটা দরকারি এক্ষেত্রে।আর ফোনটি বাঁচাতে পরবর্তী ধাপগুলো সিমকার্ডের জন্য কার্যকরী হবে না। তাই সিমকার্ডটি খুলে শুখনো করে পাশে রেখে দিন।

মোবাইলে সংযোগ দেয়া অন্য জিনিসগুলো আলাদা করে ফেলুন

আমরা আমাদের মোবাইলফোনটিতে অনেক মোবাইলফোন একসেসোরিজ ব্যবহার করে থাকি। যেমন: মেমোরিকার্ড,মোবাইলকাভার,মোবাইলফোন রিং ইত্যাদি। তাই মোবাইলফোনটি পানিতে পড়ে গেলে সেটি শুকানোর পূর্বে মোবাইলফোনের সাথে থাকা একসেসোরিজগুলো মোবাইলফোন থেকে সেপারেট করে ফেলুন।

মোবাইলফোনটি ভালোভাবে শুকিয়ে নিন

পানি মূলতঃ ইলেক্ট্রিক্স বা ইলেকট্রনিক্স ডিভাইজগুলোর ক্ষেত্রে খুবই বিপদজনক। তাই মোবাইলফোন পানিতে পড়ে গেলে ব্যাটারী এবং অন্যান্য মোবাইলফোন একসেসোরিজগুলো সেপারেট করে ভালোভাবে মোবাইলফোন ডিভাইজটি শুকিয়ে নিন। এক্ষেত্রে বাড়িতে বা হাতের নাগালে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার থাকলে সেটি কাজে লাগাতে পারেন।

ভ্যাকুয়াম ক্লিনার আপনার ফোনের আনাচে-কানাচে থাকা পানির শেষ বিন্দুটুকু সরিয়ে ফেলতে আপনাকে সাহায্য করবে। আর হ্যাঁ, কখনোই হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করবেন না এই কাজের জন্য। হেয়ার ড্রায়ার খুব গরম হয় যা ক্ষতির কারণ হতে পারে আপনার মোবাইলটির জন্য।

পানি মুছতে টিস্যু পেপার বা সুতি কাপড় ব্যবহার করুন

ফোনের ছিদ্র বা ভাঁজ অংশ থেকে পানি মুছে নিতে টিস্যু পেপার বা সুতি কাপড় ব্যবহার করুন। মোবাইলফোনের ছিদ্র বা ভাঁজ অংশগুলোতে(যেমন: কী-প্যাড) ঢুকে যাওয়া পানির একটি বিন্দুও যেন বড় কোন ক্ষতির কারণ হতে পারে আপনার শখের ফোনটির জন্য। তাই মোবাইলফোনের ছিদ্র বা ভাঁজ অংশগুলো থেকে টিস্যু বা সুতিকাপড়ের মাধ্যমে পানি সরিয়ে ফেলুন।

মোবাইলফোনটি চেক করুন

সব সংযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ফোনটিকে এক রাতের জন্য চালের মধ্যে রাখতে পারেন। শুকানোর

ক্ষেত্রে চাল খুব ভালো কাজ করে। ঘুমাতে যাওয়ার আগে পর্যন্ত প্রতি ঘন্টায় ফোনটি উল্টে দিন। ২৪ ঘন্টা অতিবাহিত হলে এবং উপরের সবগুলো ধাপ পূর্ণ করে থাকলে ব্যাটারী সংযোগ দিন এবং ফোনটি চালু করার চেষ্টা করুন।

যদি তারপরও  ফোনটি চালু না হয় নিকটস্থ মেকানিককে দেখান। আর যদি মোবাইলফোন সার্ভিস সেন্টারে নিয়ে যান। তবে মোবাইল ফোন পানিতে পড়ে যাওয়া বিষয়টি লুকাবেন না। কারণ এখন ম্যাক্সিমাম মোবাইলফোনেই পানিতে ড্যামেজ হয়েছে কিনা সেটি বোঝার জন্য এক ধরণের বিশেষ স্টিকার থাকে। যা পানির ছোয়া পেলে রং চেঞ্জ করে।

আমার জানা মতে কোন মোবাইলফোন কোম্পানি পানি দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হবার ক্ষেত্রে Warrenty Support দেয় না। তাই মিথ্যা বলে সার্ভিস চেয়ে নিজে বোকা না হওয়াটাই ভালো।

সর্বোপরি বলা যায়, আপনার শখের মোবাইলটি পানি দ্বারা Damage বা  ক্ষতিগ্রস্ত হোক এটা কারোরই কাম্য নয়। কিন্তু যদি কোন দুঃঘটনাবসত পানি দ্বারা ক্ষতিগস্ত হয়েই যায় তবে উপরে উল্লেখিত পদ্ধতিগুলো প্রয়োগ করবেন। আশা করি সুফল পাবেন। তবে আজ এই পর্যন্তই।আবার আসবো নতুন কিছু নিয়ে। সুস্থ হোক পথ চলা। সতর্ক থাকুন,ভালো থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here